ফাতওয়া  নং  ১৮৮

সুদে টাকা নিয়ে ব্যবসা করলে সেই ব্যবসার লভ্যাংশ কি বৈধ হবে? -মুফতি আবু ‍মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আলমাহদি (হাফিযাহুল্লাহ)

পিডিএফ ডাউনলোড করুন
ওয়ার্ড ডাউনলোড করুন

 

 

সুদে টাকা নিয়ে ব্যবসা করলে সেই ব্যবসার লভ্যাংশ কি বৈধ হবে?

প্রশ্ন:

কেউ যদি সুদে টাকা নিয়ে ব্যবসা করে, তাতে মুনাফা অর্জন করে। তাহলে ওই মুনাফা কি তার জন্য বৈধ হবে?

প্রশ্নকারী-মো: কুতুবুদ্দীন

ঠিকানা-চাঁদপূর

 

উত্তর:

সুদ নেয়া এবং দেয়া উভয়টিই হারাম। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সুদি লেনদেনে জড়িত সকলকে লা’নত করেছেন। হযরত জাবের রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত-

لعن رسول الله -صلى الله عليه وسلم- آكل الربا وموكله وكاتبه وشاهديه وقال هم سواء. -صحيح مسلم، رقم: 4177؛ ط. دار الجيل بيروت + دار الأفاق الجديدة ـ بيروت

“সুদ গ্রহীতা, সুদ দাতা, সুদি লেন-দেনের লেখক ও তার স্বাক্ষীদ্বয়, সকলের ওপর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম লা’নত করেছেন এবং বলেছেন, এরা সবাই সমান।” -সহীহ মুসলিম : ৪১৭৭

কাজেই কোনো প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তি থেকে সুদে ঋণ নেয়া সম্পূর্ণ হারাম। অবিলম্বে উক্ত লেনদেন নিষ্পত্তি করা এবং তা থেকে তাওবা করা জরুরি। তবে সুদে ঋণ নেয়া গুনাহের কাজ হলেও ঋণদাতা যদি হালাল অর্থ থেকে ঋণ দিয়ে থাকে, তাহলে ঋণ গ্রহীতার জন্য উক্ত টাকা এবং উক্ত টাকা দ্বারা সম্পাদিত হালাল ব্যবসায় অর্জিত মুনাফা হারাম নয়। সুতরাং সে তা ভোগ করতে পারবে।

এবিষয়ে সাইটে প্রকাশিত ১৪ নং ফতোয়াটি দেখতে পারেন- সুদি ঋণে কেনা গাড়ির ইনকাম কি জায়েয হবে? (https://fatwaa.org/2020/05/04/927/)

فقط، والله تعالى أعلم بالصواب

আবু মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আলমাহদি (উফিয়া আনহু)

০৫-০১-১৪৪৩ হি.

১৫-০৮-২০২১ ইং